ঢাকা, জানুয়ারী ১৮, ২০২২, ৫ মাঘ ১৪২৮, স্থানীয় সময়: ২২:৪৪:৪৫

আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে হামলা, বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাংচুর

| ২২ কার্তিক ১৪২৮ | Saturday, November 6, 2021

শরীয়তপুর সদর উপজেলার রুদ্রকর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে সংঘর্ষ ও আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে হামলার খবর পাওয়া গেছে। হামলায় রুদ্রকর ইউনিয়নের সুবচনী বাজারে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে থাকা থাকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাংচুর করা হয়। এ সময় আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলামের ওপর হামলারও অভিযোগ পাওয়া যায়। শুক্রবার রাত ১১টার দিকে রুদ্রকর ইউনিয়নের সুবচনী বাজারে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে হামলা চালানো হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শরীয়তপুর সদর পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.আক্তার হোসেন। 

জানা যায়, হামলায় আওয়ামী লীগের (নৌকার) চেয়ারম্যান প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম আহত হয়েছেন। তার ডান চোখ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য রাত সাড়ে ১২টার দিকে তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আরও ১৪ ব্যক্তি আহত হয়েছেন। তাদের শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হাবিবুর রহমান ঢালী ও তার সমর্থকরা এ হামলা চালিয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,  শুক্রবার রুদ্রকর ইউনিয়নের নয়াকান্দি এলাকায় গণসংযোগ করেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম ঢালী। গণসংযোগ শেষে রাত সাড়ে ১০টার দিকে কর্মীদের নিয়ে তিনি সুবচনী বাজারে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে আসেন। রাত ১১টার দিকে ওই কার্যালয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হাবিবুর রহমান ঢালী নেতৃত্বে তার সমর্থকরা ককটেল ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এ সময় আওয়ামী লীগের কার্যালয় ও কার্যালয়ে থাকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাংচুর করা হয়। এছাড়া সিরাজুল ইসলামকে লক্ষ করে ককটেল বোমা নিক্ষেপ করা হয়। এতে তার ডান চোখে আঘাত লাগে। স্থানীয় নেতা কর্মীরা তাকে উদ্ধার করে রাত সাড়ে ১১টার দিকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। তার চোখের অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতেই ঢাকায় পাঠানো হয়।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী আহত সিরাজুল ইসলাম ঢালীহাসপাতালে চিকিৎসাধীন নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী আহত সিরাজুল ইসলাম ঢালী

এ বিষয়ে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক সাইফুর রহমান বলেন, সিরাজুল ইসলামের চোখে বড় ধরনের আঘাত রয়েছে। তার চিকিৎসা শরীয়তপুরে সম্ভব নয় তাই ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। চোখের ক্ষতটা গভীর, এ কারণে ডান চোখটি নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

নৌকা প্রার্থীর ওপর হামলার বিষয়ে শরীয়তপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, রুদ্রকর ইউপি নির্বাচনে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হাবিবুর রহমান ঢালী তার সন্ত্রাসীবাহিনী নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর ওপর হামলা করেছেন। তাকে হত্যা করার উদ্দেশ্যে ককটেল বোমা নিক্ষেপ করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা যায়, আগামী ১১ নভেম্বর শরীয়তপুর সদরের রুদ্রকর ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান ঢালীকে গত ৩০ অক্টোবর শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে আওয়ামী লীগের সভাপতির পদ থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এদিকে আজ শনিবার দুপুরে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হাবিবুর রহমান ঢালী নিজ বাড়ী রুদ্রকর ইউনিয়নের সোনামূখী গ্রামে এক সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, নৌকার সমর্থকরা সুবচনী বাজারে তার নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করে বলে দাবী জানান। আওয়ামীলীগ অফিস ভাঙ্গার বিষয়টির সাথে তিনি ও তার সমর্থকরা জড়িত না।

জানতে চাইলে শরীয়তপুর সদর পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.আক্তার হোসেন বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী ও তার সমর্থকেরা আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও কার্যালয়ে হামলা করেছে এমন অভিযোগ পেয়ে ছুটে যাই। পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। আর আওয়ামী লীগের প্রার্থীসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। হামলাকারীদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারের কাজ চলছে। এ ঘটনায় নৌকার প্রার্থী আহত সিরাজুল ইসলাম ঢালীর ছোট ভাই রুহুম আমিন ঢালী বাদী হয়ে ৫৯ জনকে আসামী করে পালং (শরীয়তপুর সদর) মডেল থানায় মামলা করেছে।