ঢাকা, অক্টোবর ২৬, ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮, স্থানীয় সময়: ০১:২৭:৪৮

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

ঘরে বসেই আয়কর রিটার্ন জমা দেয়া যাবে বিএনপি আরো একটি ওয়ান ইলেভেনের স্বপ্নে বিভোর : সেতুমন্ত্রী দারিদ্র্য বিমোচনে দক্ষিণ এশীয় দেশগুলোর কাজ করা উচিত : প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামে পূজামন্ডপে হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত ১৬ জন রিমান্ডে মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধের আরও দুই মামলার তদন্ত শেষ জামায়াত ইসলামীর বিচার প্রকাশ্য আদালতে হওয়া উচিত : তদন্ত সংস্থা সমন্বয়ক বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠান সংক্রান্ত সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত বাংলাদেশকে ৫০০ মিলিয়ন ইয়েন অনুদান দিচ্ছে জাপান করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমেছে, বেড়েছে সুস্থতা খালেদার দু’মামলায় অভিযোগ গঠন শুনানি ৩ নভেম্বর

চীনের ৭২তম বার্ষিকীতে চীনা প্রেসিডেন্টকে শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীর

| ১৭ আশ্বিন ১৪২৮ | Saturday, October 2, 2021

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ গণপ্রজাতন্ত্রী চীন প্রতিষ্ঠার ৭২তম বার্ষিকী উপলক্ষে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনম্পিং ও চীনের জনগণকে আন্তরিক শুভেচ্ছা  ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই উপলক্ষে গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে একটি শুভেচ্ছা বার্তা  পাঠিয়েছেন  বলে ঢাকায়  চীনা দূতাবাসের পক্ষ থেকে  জানানো হয়েছে।
শুভেচ্ছা  বার্তায়  প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ও দেশের  জনগণের পক্ষ থেকে চীনের রাষ্ট্রপতি শি এবং তাঁর মাধ্যমে দেশটির সরকার ও  সে দেশের জনগণকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান।
প্রধানমন্ত্রী হাসিনা বলেন, ‘এক হাজার বছরেরও বেশি আগে আমাদের দুই দেশে জনগণ যোগাযোগ স্থাপন করেছিল যা আমাদের দুটি প্রাচীন সভ্যতার মধ্যে জ্ঞান, সংস্কৃতি এবং বাণিজ্যের প্রবাহকে সহজতর করেছিল”।
তিনি আরও বলেন, চীনের কমিউনিস্ট পার্টির  নেতৃত্বে আধুনিক চীন বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের জন্য একটি তাৎপর্যপূর্ণ অংশীদার।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের বাংলাদেশ সফরের কথা স্মরণ করেন। এ সময়  দুই নেতা চীন-বাংলাদেশ সম্পর্ককে কৌশলগত অংশীদারিত্বের পর্যায়ে উন্নীত করতে সম্মত হন এবং এরপর ২০১৯ সালে তিনি চীন সফর করেন। সে সফরে প্রেসিডেন্ট শি’র সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক অভিন্ন স্বার্থের  বিষয়ে  গভীর মতবিনিময়  হয়  এবং দুই নেতা ঐকমত্যে পৌঁছেন।
প্রধানমন্ত্রী হাসিনার বিশ্বাস আগামী দিনে চীন ও বাংলাদেশের মধ্যে বিভিন্ন পর্যায়ে সহযোগিতা আরও জোরদার হবে।