ঢাকা, মে ৩১, ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, স্থানীয় সময়: ০১:৫৪:৪৬

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

একীভূত হতে চাওয়া ব্যাংকের সম্পদের দাম যেভাবে নির্ধারণ করা হবে টেলিভিশন ও অনলাইন সাংবাদিকদের সুযোগ-সুবিধা প্রদানের দাবি বিএফইউজে’র দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব নিয়ে বিএনপির মাথাব্যথার কারণ নেই : ওবায়দুল কাদের বিএনপি একটি রাজনৈতিক দৈত্যের দল : পররাষ্ট্রমন্ত্রী শান্তি বজায় রাখার জন্য যা-যা করার আমরা করবো: বান্দরবানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবারের ঈদ যাত্রাও স্বস্তিদায়ক হচ্ছে: সেতুমন্ত্রী কক্লিয়ার ইমপ্ল্যান্ট শিশুদের নতুন করে বাঁচার পথ খুলে দেয় : সমাজকল্যাণ মন্ত্রী ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিস্ফোরণ: মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫ আসন্ন পবিত্র রমজানে সরকারিভাবে বড় ইফতার পার্টি না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর পুলিশকে জনগণের বন্ধু হয়ে নিঃস্বার্থ সেবা দেয়ার নির্দেশ রাষ্ট্রপতির

তেজগাঁও সড়কে অবৈধভাবে গাড়ি পার্কিং করলে কঠোর ব্যবস্থা : মেয়র আতিক

| ১০ ফাল্গুন ১৪২৯ | Wednesday, February 22, 2023

ঢাকা: ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, তেজগাঁও আনিসুল হক সড়কে কোন গাড়ি পার্কিং করা যাবে না। এই সড়কে অবৈধভাবে গাড়ি পার্কিং করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।
তিনি বলেন, ‘আমরা এখানে এলে এই রাস্তা খালি হয়ে যায়। আবার আমরা ফিরে গেলে আগের মতই সড়ক দখল করে রাখে। ট্রাক মালিক ও চালক আর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে টম অ্যান্ড জেরি খেলা খেলছে। এই কাজ করে সড়কে যানজট তৈরি হচ্ছে এবং জনভোগান্তি হচ্ছে। এই টম অ্যান্ড জেরি খেলা আর খেলতে দেয়া হবে না। জনগণের চলাচল বাধাগ্রস্ত করে এই রাস্তায় কোন গাড়ি রাখতে দেয়া হবে না।’
আজ ডিএনসিসির অঞ্চল-৩ এর আওতাধীন তেজগাঁও আনিসুল হক সড়কের অবৈধ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে ডিএনসিসি। অভিযান শেষে মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন।
বেলা সাড়ে এগারোটায় মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম সরেজমিনে সড়কটি পরিদর্শনে যান। ট্রাক মালিক সমিতির অফিসের সামনে সড়ক জুড়ে বেশ কিছু ট্রাক রাখা ছিল। মেয়রের নির্দেশে পরে সেখান থেকে ওই ট্রাকগুলো সরিয়ে দেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।
ডিএনসিসি মেয়র পুরো সড়কটি ঘুরে দেখে বলেন, ‘রেললাইনের পরপরই লেগুনার স্টেশন করা হয়েছে। এধরনের লেগুনা স্টেশন এখানে কোনভাবেই থাকতে পারবে না। কোন ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান দাঁড়াতে পারবে না।’
এ সময় ট্রাক মালিকরা জানান, গাড়ি রাখার জন্য প্রয়োজনীয় জায়গা তাদের নেই। জায়গার ব্যবস্থা করতে মেয়রকে অনুরোধ জানান মালিকরা। জবাবে মেয়র বলেন, ‘আগে রাস্তা খালি করতে হবে পরে আপনাদের কথা শুনবো। মালিক সমিতি ও চালক সমিতির নেতৃবৃন্দ আমার কথা শুনবেন তাহলেই আমি আপনাদের কথা শুনবো। আপনারা সহযোগিতা করলে আমিও আপনাদের সহযোগিতা করবো। আজকে থেকে এই রোডে কোন গাড়ি থাকবে না, এটি আপনারা নিশ্চিত করবেন।’
আতিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি এখানে রিকশার জন্য আলাদা লেইন তৈরি করে দিয়েছি। সেদিক দিয়ে রিকশাসহ অযান্ত্রিক যান চলবে। বাধাহীনভাবে অযান্ত্রিক যানগুলো এই লেন ব্যবহার করে চলতে পারবে। ফলে ট্রাক রাখতে পারবে না। এ বিষয়টি পুলিশ নিশ্চিত করবে।’
এসময় পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের প্রতিনিধি মেয়রকে জানান, সাতরাস্তা হয়ে ফার্মগেটে যাওয়ার পথে যে রেলক্রসিংটি রয়েছে সেটিকে সরিয়ে রাস্তাটি সোজা করে দিলে যানজট অনেক কমে যাবে। জবাবে মেয়র বলেন, এই বিষয়ে রেলমন্ত্রীর সাথে আলাপ করে সিদ্বান্ত নেয়া হবে। ডিএনসিসির প্রধান প্রৌকশলীকে বিষয়টি সার্ভে করে ডিজাইন করার নির্দেশ দেন মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।
তেজগাঁওয়ের এই ব্যস্ততম সড়কটিতে স্থায়ীভাবে শৃঙ্খলা ফেরাতে স্থানীয় কাউন্সিলরকে প্রধান করে বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতি, বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান ট্রান্সপোর্ট এজেন্সি মালিক সমিতি, বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান ড্রাইভার্স ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং পুলিশ বিভাগের প্রতিনিধি নিয়ে একটি কমিটি গঠনের ঘোষণা দেন মেয়র।