ঢাকা, জুন ২২, ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১, স্থানীয় সময়: ২২:৫৫:০১

এবারের ঈদ যাত্রাও স্বস্তিদায়ক হচ্ছে: সেতুমন্ত্রী

| ২৪ চৈত্র ১৪৩০ | Sunday, April 7, 2024

ঢাকা : গত বছরের ন্যায় এবারের ঈদ যাত্রাও স্বস্তিদায়ক হচ্ছে। সড়কে গাড়ি চাপ আছে। তবে যানজট নেই বলে মন্তব্য করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।
আজ সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ‘সাসেক সড়ক সংযোগ প্রকল্প-২ (এলেঙ্গা-হাটিকুমরুল-রংপুর মহাসড়ক)’-এর আওতায় নির্মিত একটি রেলওভারপাস, সাতটি ওভারপাস ও ২টি সেতু যান চলাচলের জন্য উন্মুক্তকরণ অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।
এবারের ঈদ যাত্রা স্বস্তিদায়ক হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করে ওবায়দুল কাদের জানান, আজ থেকে বগুড়ার তিনমাথা রেলগেইট-এ ৫৫০ মিটার দৈঘ্যের ১টি রেলওভারপাস, ২টি সেতু-সিরাজগঞ্জে ৫৬ মিটার দৈর্ঘ্যের দাতিয়া সেতু ও ৩২ মিটার দৈর্ঘ্যের ফটকি সেতু ছাড়াও সিরাজগঞ্জে ৩৯ মিটার দৈর্ঘ্যের মুলিবাড়ি ওভারপাস, ৩৯ মিটার দৈর্ঘ্যের পাঁচিলা ওভারপাস ও ৩৫ মিটার দৈর্ঘ্যের দাতপুর ওভারপাস, বগুড়ায় ১৫৮ মিটার দৈর্ঘ্যের বি-ব্লক ক্যান্টনমেন্ট ওভারপাস ও ১৭৮ মিটার দৈর্ঘ্যের ফুলতলা ওভারপাস, রংপুরে ৩০ মিটার দৈর্ঘ্যের ধাপেরহাট ওভারপাস এবং ৮ মিটার দৈর্ঘ্যেও মির্জাপুর ওভারপাস যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়া  হলো।
এদিন একই সাথে ঢাকা-চট্টগ্রাম জাতীয় মহাসড়কের টোল প্লাজার সকল লেনে ইলেকট্রনিক টোল কালেকশন-ইটিসি কার্যক্রম চালুসহ মেঘনা সেতু টোল প্লাজা -দুই এর উদ্বোধন করেন সেতু মন্ত্রী।
ঈদকে সামনে রেখে ১টি রেলওভারপাস,৭টি ওভারপাস ও ২টি সেতু যান চলাচলের জন্য শুভ উন্মুক্ত করণ দেশবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঈদ উপহার বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।
এ সময়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, পাহাড়ে হামলার ঘটনায় তদন্ত চলছে,সব বেরিয়ে আসবে। পাহাড়ে যৌথ অভিযান চলছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। বিক্ষিপ্ত কিছু ঘটনা। এখানে গোটা পাহাড় অশান্ত হওয়ার কোনো কারণ নেই।
তিনি বলেন, চীন ও ভারত সীমান্তের কাছে চীন স্টেট নামে একটা স্টেট আছে। ওখানে কেএনএফ এর একটি ঘাঁটি আছে বলে মনে করা হয়। তাদের সাথে আগে আলোচনা হলেও কেন তারা বিদ্রোহ করল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সেখানে যৌথ অভিযান চলছে। যদি বাইরের কারো থাকে সাপোর্ট থাকে ইউপিডিএফ,সন্তু লারমার জনসংহতি সমিতি বললে আলাদা কথা। এই ক্ষুদ্র বিচ্ছিন্ন গোষ্ঠীকে কে সমর্থন দেবে? সংক্ষুব্ধ হয়ে তারা এটি করতে পারে।
সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, ‘এই ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়িত নেই, শুধু আছে বান্দরবানে। এই ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর কিছু তরুণ অস্ত্রশস্ত্রসহ মহড়া দিচ্ছে। এ ব্যাপারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যৌথ অভিযান চালাচ্ছে। আশা করি অচিরেই পরিস্থিতি শান্ত হবে।’
ঢাকায় অস্বাভাবিক যানজট নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, রাজধানীতে এখন কোনো যানজট নেই, থাকবে না। রাজধানী খালি হয়ে গেছে। কোথায় যে দিনের আলোতে রাতের অন্ধকার!
উল্লেখ্য, ১৯ হাজার ১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৯০.৪০ কিলোমিটার দীর্ঘ এলেঙ্গা-হাটিকামরুল-রংপুর মহাসড়কটি সাঊথ এশিয়ান সাব-রিজিওনাল ইকোনমিক কো-অপারেশন (সাসেক) করিডোর, এশিয়ান হাইওয়ে-২, বিমসটেক-২ এবং সার্ক হাইওয়ে করিডোর-৪ এর উল্লেখযোগ্য অংশ। বাংলাদেশ সরকার ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের অর্থায়নে সাসেক-২ প্রকল্পের মাধ্যমে ধীরগতি সম্পন্ন যানবাহনের জন্য পৃথক লেনের সংস্থানসহ মহাসড়কটিকে ৬-লেনে উন্নীত করা হচ্ছে। প্রকল্পের আওতায় সিরাজগঞ্জের হাটিকামরুলে পৃথক গ্রেডবিশিষ্ট একটি ইন্টারচেঞ্জ, ৫টি ফ্লাইওভার, ৩২টি সেতু ও ৩৯টি ওভারপাস নির্মাণের সংস্থান রয়েছে। যার মধ্যে ১৪টি সেতু, ১টি ফ্লাইওভার ও ১৫টি ওভারপাস ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করেছেন। প্রকল্পের আওতায় আরও ১টি রেলওভারপাস, ৭টি ওভারপাস ও ২টি সেতুর নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হয়েছে, যা আজ উন্মুক্ত করে দেয়া হলো।
এসময় ঢাকা প্রান্তে মন্ত্রাণালয়ের সভাকক্ষে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরীসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।