ঢাকা, নভেম্বর ২২, ২০১৮, ৮ অগ্রহায়ন ১৪২৫, স্থানীয় সময়: ১৬:৪৯:৩৪

সৌদি বাদশাহকে হত্যার হুকুমদাতা মনে হয়নিঃএরদোয়ান

| ২০ কার্তিক ১৪২৫ | Sunday, November 4, 2018

 

সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজের সঙ্গে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান। ফাইল ছবি : সংগৃহীত

ওয়াশিংটন পোস্টের এক লেখায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান লিখেছেন, তিনি ‘এক সেকেন্ডের জন্যও’ বিশ্বাস করেন না যে, সৌদি বাদশাহ এই হত্যাকাণ্ডের নির্দেশ দিয়েছেন এবং পুরো লেখায় তিনি সৌদি যুবরাজকে সরাসরি দোষারোপ করা থেকেও বিরত থাকেন।

তবে শুক্রবারে প্রকাশিত এই লেখায় সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যাকাণ্ডে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট প্রথমবারের মতো সরাসরি সৌদি সরকারকে দায়ী করলেন।

এরদোয়ান বলেছেন, ‘সৌদি সরকারের উচ্চপর্যায় থেকেই’ জামাল খাসোগিকে হত্যার নির্দেশ আসে। তিনি এ সময় ‘পুতুল খেলার নেপথ্য নায়কদের মুখোশ খুলে’ সামনে হাজির হওয়ার আহ্বান জানান।

ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট এবং সৌদি সরকারের, বিশেষ করে ক্ষমতাধর সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের কড়া সমালোচক হিসেবে পরিচিত সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগি এক মাস আগে গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে ঢোকার পর নিখোঁজ হন।

এরদোয়ানের এক উপদেষ্টা অবশ্য গত সপ্তাহে বলেন, যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান অনানুষ্ঠানিকভাবে হত্যার বিষয়টি জানতেন। তিনি বলেন, খাসোগি হত্যায় যুবরাজের হাত রক্তাক্ত হয়েছে। এরদোয়ানের উচ্চপদস্থ কেউ সরাসরি রিয়াদের ক্ষমতাধর যুবরাজ সম্পর্কে সরাসরি দোষারোপের নজির এই প্রথম।

সৌদি সরকার শুরুতে বলে খাসোগি কনস্যুলেট থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর নিখোঁজ হয়েছেন। পরে তারা বলে, সে একটি অপরিকল্পিত অভিযানে ভুলক্রমে খুন হয়েছে। এরও পরে গত সপ্তাহে সৌদি সরকারের প্রধান আইনজীবী সৌদ আল-মোজেব বলেন, খাসোগির হত্যার ঘটনাটি পূর্বপরিকল্পিতই ছিল।

উপসম্পাদকীয়তে লেখা নিবন্ধে এরদোয়ান বলেছেন, ‘ন্যাটোভুক্ত দেশের মাটিতে আর কেউ এমন কাজ দ্বিতীয়বার করার চিন্তাও করবে না। এরপরও যদি কেউ এমন সাহস করে তাহলে তাকে ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখে পড়তে হবে।’

এরদোয়ান বলেন, খাসোগি হত্যাকাণ্ডে ‘নিরাপত্তাবাহিনীর একটি দলের কর্মকাণ্ডের’ বাইরেও অনেক কিছু রয়েছে।

ইস্তাম্বুলের সৌদি কনসাল জেনারেলের বিরুদ্ধে নির্জলা মিথ্যা বলার অভিযোগ এনে এরদোয়ান জানান, সৌদি সরকারের প্রধান আইনজীবীও সহযোগিতা করতে অস্বীকৃতি জানানোর পাশাপাশি তদন্তকাজে দেরি করাসহ সহজ সহজ প্রশ্নের উত্তর দেওয়া থেকে বিরত ছিলেন।

অ্যাসিডে ঝলসে ফেলা হয়েছে খাসোগির লাশ

গতকাল শুক্রবার তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের অপর এক উপদেষ্টা বলেছেন, ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে হত্যার পর লাশ টুকরো টুকরো করে সহজে নিশ্চিহ্ন করতে তা অ্যাসিডে ঝলসে ফেলা হয়েছে।

তুরস্কের সংবাদপত্র হুররিয়াত এরদোয়ানের উপদেষ্টা ইয়াসিন আকতারির এই বক্তব্য ছেপেছে। ইয়াসিন আকতারি নিহত সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগির বন্ধু ছিলেন।

এরদোয়ানের এই উপদেষ্টা হুররিয়াতকে বলেন, ‘সহজে খাসোগির মরদেহ নিশ্চিহ্ন করতে প্রথমে টুকরো টুকরো করে নেওয়া হয়।’