ঢাকা, আগস্ট ১৬, ২০১৮, ১ ভাদ্র ১৪২৫, স্থানীয় সময়: ১৫:৫৮:৫৯

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

সারা দেশে জাতীয় শোকদিবস পালিত নেত্রকোনায় শোক দিবসের সমাবেশে আ. লীগের দুই পক্ষে সংঘর্ষ টুঙ্গীপাড়ায় জাতির পিতার সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা শোক দিবসে মিথ্যা জন্মদিন উৎসব রুচি বিকৃতি ও অশ্লীলতা : তথ্যমন্ত্রী কোটা সংস্কার কমিটি সুপারিশ প্রায় চূড়ান্ত করেছে : মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাধ্যমিক শিক্ষার উন্নয়নে সরকার-বিশ্বব্যাংক ৫২০ মিলিয়ন ডলারের চুক্তি স্বাক্ষর ন্যায়বিচার নিশ্চিতকরণে সতর্ক থাকতে বিচারকদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান দাওরায়ে হাদিস (তাকমিল) পেল স্নাতকোত্তর ডিগ্রীর সমমান প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি নেতা অনিন্দ্য গোপাল মিত্রের সাক্ষাৎ কোটালীপাড়ায় অ্যাডঃ রবীন্দ্র ঘোষ ও তার প্রতিনিধি দলের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল ।

সার্কের অগ্রগতিতে বিদ্যুৎ বাণিজ্য অবদান রাখবে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

দেশের খবর | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৫ | Saturday, August 11, 2018

ঢাকা : বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, আঞ্চলিক সহযোগিতার মাধ্যমে বিদ্যুৎ বাণিজ্য সার্ক অঞ্চলের অগ্রগতিতে অবদান রাখবে।
নেপালের কাঠমান্ডুতে ‘বিদ্যুৎখাতে বাংলাদেশ ও নেপালের মধ্যে পারস্পরিক মিথস্ক্রিয়া’ শীর্ষক এক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, ‘বিদ্যুৎখাতে সহযোগিতার জন্য সার্ক ফ্রেমওয়ার্ক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে, বিমসটেকও সহযোগিতা বৃদ্ধিতে কাজ করছে।
নেপালের বিদ্যুৎ উন্নয়ন কাউন্সিল এবং ইন্ডিপেনডেন্ট পাওয়ার প্রডিউসার এসোসিয়েশনের সহযোগিতায় নেপালে বাংলাদেশ দূতাবাস সেমিনারের আয়োজন করে।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০৪০ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে ৬০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে হবে এবং এর জন্য বিদ্যুৎ খাতে ৮০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিনিয়োগ প্রয়োজন।
এর মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের চুক্তি করেছে, ইউরোপ (সিমেন্স, জার্মানি, রাশিয়া) ১৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, মধ্য প্রাচ্যের ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, জাপান ৬ দশমিক ৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং চীন ৭ দশমিক ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ চুক্তি করেছে।
নসরুল হামিদ বলেন, মাস্টার প্ল্যান- ২০১৬ অনুযায়ী সরকার কয়লা থেকে ৩৫ শতাংশ, গ্যাস থেকে ৩৫ শতাংশ, নবায়নযোগ্য জ্বালানি থেকে ১০ শতাংশ, সীমান্ত বাণিজ্য থেকে ১১ শতাংশ, পরমাণু থেকে ৬ শতাংশ এবং জলবিদ্যুৎ ও অন্যান্য উৎস থেকে ৩ শতাংশ উৎপাদন করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।
নেপালের বিনিয়োগ বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মহা প্রসাদ অধিকারী বলেন, নেপালের ৮হাজার মেগাওয়াট জলবিদ্যুৎ উৎপাদনে বাংলাদেশ বিনিয়োগ করতে পারে।
ইন্ডিপেনডেন্ট পাওয়ার প্রডিউসার এসোসিয়েশন, নেপাল এর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, নেপাল-বাংলাদেশ বিদ্যুৎ সঞ্চালন ব্যবস্থা সরাসরি করা গেলে উভয় পক্ষ আরো লাভবান হবে। এজন্য বৈঠকে ক্রস বর্ডার নির্দেশিকায় ত্রি-পাক্ষিক বা বহুপাক্ষিক বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করতে ভারতের সাথে আলোচনার বিষয়টি নিয়েও আলোচনা হয়।
নেপালের জ্বালানি উন্নয়ন কাউন্সিলের নির্বাহী কমিটির সদস্য সীমান্ত দাহালের সঞ্চালনায় নেপালের বিদ্যুৎ উন্নয়ন কাউন্সিলের নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান কুশাল গুরুং, ইন্ডিপেনডেন্ট বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী সংস্থার সভাপতি নেপাল শৈলেন্দ্র গোরাগেন এবং নেপালে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মাসফী বিনতে শামস সেমিনারে বক্তব্য রাখেন।