ঢাকা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, স্থানীয় সময়: ০৮:৫৪:২৬

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে রাস্তা নির্মাণে সরকারের ৪০ কোটি টাকা বরাদ্দ এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা সর্বোচ্চ সতর্কতায় সম্পন্ন করার নির্দেশ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সাক্ষাৎ এসডিজি বাস্তবায়নে বেসরকারি খাতকে সম্পৃক্ত করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর সারা দেশে এক হাজার ৮৪১ রোহিঙ্গা আটক, পাঠানো হয়েছে উখিয়ায় মালদ্বীপকে হারিয়ে শিরোপার পথে বাংলাদেশ দেশে আয়করদাতার সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী আরো ৫০ হাজার মেট্রিক টন চাল আমদানি অনুমোদন বিশ্বমানের গবেষণা চালাতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান রোহিঙ্গাদের জন্য যুক্তরাষ্ট্র ২৬২ কোটি ৩ লাখ টাকা মানবিক সহায়তা দেবে

রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে অবশ্যই ফিরে যেতে হবে : নাসিম

দেশের খবর | ২৯ ভাদ্র ১৪২৪ | Wednesday, September 13, 2017

টাঙ্গাইল : স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সভাপতিন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের এদেশে আশ্রয় দিয়েছেন। কিন্তু মানবিক কারণ এই নয় যে, তারা এখানে দীর্ঘদিন এদেশে থাকবে। তাদেরকে নিজ দেশে অবশ্যই ফিরে যেতে হবে।
গতকাল টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলা মিলনায়তনে স্বাস্থ্য সুরক্ষা কর্মসূচির আওতায় টাঙ্গাইলের মধুপুর ও ঘাটাইল উপজেলায় অতি দরিদ্রদের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিতকল্পে ‘স্বাস্থ্যকার্ড বিতরণ’ অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।
মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আমরা মায়ানমার সরকারকে অনুরোধ করবো তারা যেন দ্রুততম সময়ে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়। সেদেশের সরকার যেন এভাবে বর্বর হত্যাকান্ড বন্ধ করে। এটা মানবাধিকার চরমভাবে লঙ্ঘিত হচ্ছে।
তিনি বলেন, এই বর্বর হত্যাকান্ড বন্ধের জন্য বিশ্ববাসী ও জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আহ্বান জানানো হয়েছে। তারা যেন মানবিক কারণে এগিয়ে আসে। রোহিঙ্গাদের পূর্ণবাসনের ব্যবস্থা মায়ানমারে করেন। বিশ্বের বড়বড় রাষ্ট্র উদ্যোগ নিয়ে মায়ানমারে নিজ দেশে রোহিঙ্গাদের দ্রুত পুনর্বাসন করেন।
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আসাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি, বঙ্গবঙ্গু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল ইসলাম খান, টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক খান মো. নূরুল আমিন, সিভিল সার্জন ডা. শরিফ হোসেন খান, গ্রীণডেল্টা লাইফ ইনস্যুরেন্সের এমডি ফারজানা চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বলেন, বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের চিকিৎসা সেবাসহ সবধরনের মানবিক সহায়তা দেয়া হচ্ছে। রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে বা রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানকল্পে ভারত-চীনসহ সব দেশ বাংলাদেশের পাশে থাকবে ইন্শাল্লাহ। রোহিঙ্গাদের নিয়ে সন্ত্রাস বা জঙ্গিবাদের কোন হুমকী বা চাপ অনুভব করছে না বর্তমান সরকার। তবে তাদেরকে অবশ্যই দ্রুত সময়ের মধ্যে ফেরত নিতে হবে।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের জরুরী স্বাস্থ্য সেবা দেয়ার জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের ১২১ টিম কক্সবাজার এলাকার বিভিন্ন স্থানে কাজ করছে।
স্বাস্থ্য সুরক্ষা কর্মসূচি’র প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গরীব মানুষের বিনা পয়সায় ৫০ রকম রোগের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতেই শেখ হাসিনার সরকার গরীববন্ধব এ কর্মসূচী হাতে নিয়েছে। সরকারের এ কর্মসূচি স্বার্থক করতে হলে চিকিৎসক-নার্সদের গ্রামে থেকে আন্তরিকতার সাথে মায়ের মমতা দিয়ে চিকিৎসা সেবা দিতে হবে।
মোহাম্মদ নাসিম বলেন, চিকিৎসকরা গ্রামের বাবা মায়ের সন্তান হয়েও গ্রামে থাকতে চান না। চিকিৎস্যকদের অবশ্যই গ্রামে থেকে মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে হবে। তা না পারলে তাদের চাকরি করার অধিকার নেই। সরকার এটা কোন অবস্থাতেই বরদাস্ত করবে না। কারণ আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের সেবা করতে এসেছে। শোষন করতে নয়।
পরে মন্ত্রী দরিদ্র ও বিত্তহীনদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা পাওয়ার জন্য স্বাস্থ্যবীমা কার্ড বিতরণ করেন।