ঢাকা, মে ২৭, ২০১৮, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, স্থানীয় সময়: ০৩:২৯:০৮

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

পূজা থেকে শিশুকে ডেকে নিয়ে ‘গণধর্ষণ’, আপোষের হুমকি! উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে বৈঠক এখনও হতে পারে : ট্রাম্প পিয়ংইয়ং ও ওয়াশিংটনের বৈঠকের সম্ভাবনাকে স্বাগত জানিয়েছে সিউল শেখ হাসিনা-মোদি বৈঠক অনুষ্ঠিত আত্মঘাতি হামলার পর ইন্দোনেশিয়ার কঠিন সন্ত্রাস বিরোধী আইন পাস মমতাকে মঞ্চে বসিয়ে মোদীর একাধিক গোল! বিশ্বভারতীর সমাবর্তনেই দলের প্রচার শুরু : উঠল ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনিও। আফগানিস্তানে স্টেডিয়ামে বোমা হামলায় নিহত ৮, আহত ৪৫ টেক্সাসের স্কুলে বন্দুক হামলায় নিহত ১০ মুক্তির পর মালয়েশিয়ায় নতুন ভোরের ঘোষণা আনোয়ার ইব্রাহিমের যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে শীর্ষ বৈঠক বাতিলের হুমকি উ. কোরিয়ার

রাশিয়ার বিরুদ্ধে এবার নির্বাচনে হস্তক্ষেপের অভিযোগ যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর

| ৩০ কার্তিক ১৪২৪ | Tuesday, November 14, 2017

 

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে রাশিয়ার বিরুদ্ধে নির্বাচনে হস্তক্ষেপের অভিযোগ এনেছেন। ছবি : বিবিসি

যুক্তরাষ্ট্রে ২০১৬ সালের নভেম্বরে অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে জেতাতে রাশিয়ার তৎপরতা নিয়ে তদন্ত করছে মার্কিন আইন সভা কংগ্রেস। সেই তদন্তের মধ্যেই আরেক বোমা ফাটালেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে। তিনি রাশিয়ার বিরুদ্ধে নির্বাচনে হস্তক্ষেপ ও সাইবার গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ এনেছেন।

লন্ডনে ব্যবসায়ী নেতাদের নিয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে টেরিজা মে এই অভিযোগ করেন।

বিবিসির খবরে বলা হয়, মে তাঁর বক্তব্যে ভ্লাদিমির পুতিনের সরকার উদার সমাজ ভাঙার চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ করেন। একই সঙ্গে রশিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা গল্প ফাঁদার অভিযোগ আনেন তিনি।

রাশিয়ার সঙ্গে যুক্তরাজ্য সরাসরি কোনো বিরোধিতায় যেতে চায় না উল্লেখ করে মে বলেন, তাঁরা নিজেরাই নিজেদের স্বার্থ সংরক্ষণ করবেন।

এদিকে গত সপ্তাহেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করেন বলে পুতিন যে মন্তব্য করেছেন, তাতে সম্পূর্ণ আস্থা আছে তাঁর। আজ ট্রাম্পের সেই কথার পুরোপুরি উল্টো কথা বললেন তেরিজা মে।

ম্যানশন হাউসে আয়োজিত ওই সভায় পুতিনের উদ্দেশে খুব সাধারণ বার্তা দেন তেরিজা মে। তিনি বলেন, সম্প্রতি ক্রিমিয়া অধিগ্রহণ করেছে মস্কো, ইউক্রেনে সংঘর্ষ সৃষ্টি করেছে এবং ইউরোপজুড়ে বিভিন্ন দেশের সরকার ও পার্লামেন্টের ওপর সাইবার হামলা চালিয়েছে। তবে এখন ভ্লাদিমির পুতিনকে এসব ছেড়ে একেবারে ভিন্ন পথে চলতে হবে।

রাশিয়া নিয়ম-নীতি মেনে চললে পশ্চিমা বিশ্বের জন্য গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার হতে পারে বলেও মন্তব্য করেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী।