ঢাকা, এপ্রিল ১৯, ২০১৯, ৫ বৈশাখ ১৪২৬, স্থানীয় সময়: ০২:৩৭:১২

মেছতা কেন মুখে বেশি হয়?

স্বাস্থ্য ও বিনোদন | ১৩ চৈত্র ১৪২৫ | Wednesday, March 27, 2019

 

মেছতার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন ডা. ফারিয়াল হক। ছবি : এনটিভি

মেছতা হওয়ার দুটি অন্যতম কারণ হলো, ত্বকের বিভিন্ন অংশ সূর্যের আলোর সংস্পর্শে আসা এবং হরমোনের ভারসাম্যহীনতা।

সাধারণত শরীরের উঁচু অংশগুলো সূর্যের আলোর সংস্পর্শে বেশি আসে। যেমন : গালের দুই পাশ, কপাল, নাক ইত্যাদি। আর এ থেকে ওই অংশগুলোতে মেছতা বেশি হয়।

মুখে বা ত্বকের বিশেষ বিশেষ জায়গায় মেছতা কেন বেশি হয়,  এ বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ৩৩৮৭তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. ফারিয়াল হক। বর্তমানে তিনি প্রেসক্রিপশন পয়েন্টে চর্ম ও যৌন বিভাগের পরামর্শক হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : মেছতা মুখে বা বিশেষ বিশেষ জায়গায় বেশি হয় কেন?

উত্তর : এর কারণ হলো তাপমাত্রা। আপনার মুখের যেই জায়গাটা একটু উঁচু থাকবে, সেই জায়গাটা সূর্যের সংস্পর্শে বেশি আসবে। আপনার কানের পেছনে কখনো মেছতা দেখবেন না বা নাকের ভাঁজে কখনো মেছতা দেখবেন না। মেছতা দেখা যায় সাধারণত যাদের চিকের হাড়টা উঁচু তাদের ক্ষেত্রে। নাকের ওপরে হয়, কপালে হয়। এমনকি হাতেও হয়। সূর্যের আলোর সংস্পর্শে তো সব জায়গায়ই হবে। তবে যেই জায়গাটা উঁচু থাকছে, সেখানে সংস্পর্শ বেশি হচ্ছে এবং তাপমাত্রা সবসময় বাড়া থাকছে। এই জন্য ওই জায়গাগুলোতে মেলানিন উৎপাদন বেশি হওয়ার কারণে এটা হচ্ছে।