ঢাকা, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৮, ১ পৌষ ১৪২৫, স্থানীয় সময়: ১৩:১৯:৩৩

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

জাতিসংঘে হামাসের বিরুদ্ধে মার্কিন নিন্দা প্রস্তাব নাকচ রাজস্থান ও তেলেঙ্গানায় বিধানসভার ভোটগ্রহণ:রাজস্থানে ৭২.৭০ শতাংশ এবং তেলেঙ্গানায় প্রায় ৬৭ শতাংশ ভোট পড়েছে ড্রোন হামলায় হেলমান্দের তালেবান কমান্ডার নিহত জ্বালানি কর বাড়ানো থেকে পিছু হটছে ফ্রান্স ওয়াশিংটনে প্রয়াত প্রেসিডেন্ট বুশের প্রতি শ্রদ্ধা জানালেন ট্রাম্প মার্কিন কংগ্রেসে জামায়াতে ইসলামীর বিরুদ্ধে বিল পেশ ট্রাম্পের কাছে ইউক্রেন পরিস্থিতি তুলে ধরলেন পুতিন বাণিজ্য যুদ্ধ বন্ধে সম্মত যুক্তরাষ্ট্র ও চীন কলকাতার মেয়র হলেন ফিরহাদ হাকিম মোহাম্মদ বিন সালমানের সমালোচনা সহ্য করবে না সৌদি আরব

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সর্বনিম্ন তাপমাত্রার শত বছরের রেকর্ড!

| ২৩ পৌষ ১৪২৪ | Saturday, January 6, 2018

 

তীব্র তুষার ঝড় বা ‘বোমা সাইক্লোনের’ জেরে এবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা শত বছরের রেকর্ড ভঙ্গ করতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন দেশটির আবহাওয়াবিদরা। তাপমাত্রা নেমে যেতে পারে মাইনাস ২০ ডিগ্রি ফারেনহাইট বা মাইনাস ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর-পূর্বাঞ্চলজুড়ে চলা শীতকালীন ঝড়ে এ পর্যন্ত ১৯ জনের প্রাণহানি হয়েছে বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। এদের মধ্যে টেক্সাসে তিনজন, নর্থ ক্যারোলিনায় দুজন, আর বিউফোর্টে একজন মারা গেছে।

শৈত্যঝড়ে বাতাসের গতি ঘণ্টায় ৯৫ কিলোমিটারের অধিক। এই তীব্র ও ভারি তুষারপাত আর রক্ত শীতল করা তাপমাত্রা, সঙ্গে ঘণ্টায় ৯৫ কিলোমিটারের বেগে শৈত্যঝড়। নিউইয়র্কের তাপমাত্রা মাইনাস সেভেন ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা রেকর্ড।

শৈতপ্রবাহের পাশাপাশি প্রবল তুষারপাতের কারণে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে বেশ কয়েকটি শহরে। গত বৃহস্পতিবারই জরুরি অবস্থার ঘোষণা দিয়েছেন নিউইয়র্ক গভর্নর এন্ড্রু কুমো। আর ম্যাসাচুসেটস গভর্নর জানিয়েছেন দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্র।

তুষার ঝড়ের হাত থেকে রেহাই পায়নি নিউইয়র্ক সিটিও। এবারে সিটিতে মৌসুমী তুষারপাতে তাপমাত্রা নেমেছে মাইনাস সাত ডিগ্রি সেলসিয়াসে। বলা হচ্ছে, এটি এ যাবৎ নিউইয়র্কের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। আর সে কারণেই শহরজুড়ে জরুবি অবস্থা ঘোষণা করা হয়।

ম্যাসাচুসেটস গভর্নর চার্লি বেকার বলেন, এই বন্যার চিত্র একটা ইতিহাস। আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা আরো বড় দুর্যোগের পূর্বাভাস দিয়েছেন। আমরাও প্রস্তুত। আমরা আমাদের ন্যাশনাল গার্ডদের মোতায়েন করেছি জনগণের পাশে দাঁড়াতে।

যুক্তরাষ্ট্র দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল থেকে উত্তর-পূর্বাঞ্চল হয়ে কানাডার পূর্ব উপকূল পর্যন্ত চলমান এই শৈত্যপ্রবাহকে ডিপ ফ্রিজের পরিবর্তে ‘বোমা সাইক্লোন’ নাম দিয়ে বিবিসি জানায়, বিরূপ আবহাওয়ার কারণে গত বৃহস্পতিবার দেশটির চার হাজার ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। কমানো হয়েছে ট্রেনের সিডিউল। স্থগিত করা হয়েছে প্রাদেশিক বাস পরিবহন। এর মধ্যে পর্যটকরা পড়েছেন বিপাকে।

বোস্টনে ১৮ ইঞ্চি বরফ জমার পাশাপাশি উপকূলীয় বন্যা দেখা দিয়েছে, যা ১৯২১ সালের রেকর্ড ভাঙবে। যুক্তরাষ্ট্রের মধ্য আটলান্টিক পর্যন্ত বরফ যুগ বা মেরু অঞ্চলের মতো আচরণ করছে, যার ভুক্তভোগী মাইন থেকে জর্জিয়ার ৬০ মিলিয়ন অধিবাসী।

ম্যাসাচুসেটসের গাড়িচালক রিক লা ভেরেরে বলছিলেন, অনেক খারাপ, বাইরে কোনো কিছুই দেখা যায় না। বহু কষ্টে আমি আমার ট্রাক নিয়ে পৌঁছাতে পেরেছি। অনেক জায়গায় আমি থেমে ছিলাম দীর্ঘক্ষণ।

নিউ ইংল্যান্ড উপকূলে ভারি তুষারপাত ও শক্তিশালী ঝড় চলছে। সঙ্গে দেখা দিয়েছে উপকূলীয় বন্যা। তুষারপাতের আঘাত থেকে রেহাই পায়নি দক্ষিণের রাজ্য ফ্লোরিডাও।

এদিকে, নিউইয়র্ক, ফিলাডেলফিয়া, বোস্টন, দ্য ক্যারোলিনাস, মেরিল্যান্ড এবং ভার্জিনিয়ার সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তাপমাত্রা নেমে যেতে পারে মাইনাস ২০ ডিগ্রি ফারেনহাইট বা মাইনাস ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসে, যা ভাঙতে পারে শত বছরের রেকর্ড।