ঢাকা, ফেব্রুয়ারী ২৪, ২০১৮, ১১ ফাল্গুন ১৪২৪, স্থানীয় সময়: ০০:৩০:০৫

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

নাশকতার মামলা এ জেড এম জাহিদসহ ২৪ জনকে গ্রেপ্তারে পরোয়ানা ধর্ম অবমাননার মামলায় আনিস আলমগীরকে গ্রেপ্তারে পরোয়ানা যুক্তরাষ্ট্রে তেষ্টায় বন্দির মৃত্যু : ৩ কারা কর্মকর্তা অভিযুক্ত টাঙ্গাইলের মধুপুরে চলন্ত বাসে কলেজছাত্রী রূপাকে গণধর্ষণ ও হত্যার দায়ে চারজনের ফাঁসি কারাগারে খালেদা জিয়াকে ডিভিশন দেয়া হচ্ছে : আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায়ের সত্যায়িত কপির জন্য দুপক্ষের আবেদন খালেদা জিয়াকে ডিভিশন দিতে আদালতের নির্দেশ স্ত্রীকে হত্যার পর শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে সম্বন্ধীর স্ত্রীকে হত্যা! যুদ্ধাপরাধে এবার ৩১তম রায়ের অপেক্ষা মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলা : নোয়াখালীর চার আসামীর রায় যে কোন দিন

মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলা : নোয়াখালীর চার আসামীর রায় যে কোন দিন

আইন ও মানবাধিকার | ২৫ মাঘ ১৪২৪ | Wednesday, February 7, 2018

ঢাকা : মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় নোয়াখালীর সুধারামের আমির আলীসহ চার জনের বিরুদ্ধে যে কোন রায় (সিএভি) ঘোষণা করা হবে।
উভয়পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের বিচারিক প্যানেল আজ এ আদেশ দেয়। মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধ তথা যুদ্ধপরাধের মামলায় এটি ট্রাইব্যুনালের ৩১ তম রায়।
২০১৬ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর এ মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। আনীত অভিযোগ প্রমাণে সক্ষম হয়েছেন দাবি করে আসামীদের সর্বোচ্চ সাজা চেয়ে প্রসিকিউটর জাহিদ ইমাম ও প্রসিকিউটর রেজিয়া সুলতানা চমন শুনানি করেন।
আসামী চারজনের মধ্যে গ্রেফতার হয়ে কারাগারে রয়েছেন আমির আহম্মেদ ওরফে রাজাকার আমির আলী, জয়নাল আবদিন ও আব্দুল কুদ্দুস এবং পলাতক রয়েছেন আবুল কালাম ওরফে এ কে এম মনসুর।
মামলার অন্য আসামি ইউসুফ আলী গ্রেফতারের পর অসুস্থ হয়ে মারা যাওয়ায় তাকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।
আসামীদের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে নোয়াখালীর সুধারামে ১১১ জনকে হত্যা-গণহত্যার তিনটি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে। ২০১৬ সালের ২০ জুন অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে এ চারজনের বিচার শুরু হয়।
২০১৫ সালের ৫ অক্টোবর আসামীদের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ (ফরমাল চার্জ) দাখিল করা হয়।