ঢাকা, এপ্রিল ১৯, ২০১৯, ৫ বৈশাখ ১৪২৬, স্থানীয় সময়: ০২:৩২:২৩

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

দক্ষ জনবল নেই, ৪২ হাজার ট্যাব কিনল ইসি! মেট্রোরেলের দেয়ালে বাসের ধাক্কা, বৃদ্ধা নিহত বঙ্গবন্ধুর ওপর নির্মিত নাটক, প্রতিযোগিতার জন্য ট্রাস্টের অনুমতির প্রয়োজন নেই ২১ এপ্রিল দিবাগত রাতে সারাদেশে পবিত্র লাইলাতুল বরাত প্রধানমন্ত্রীর ৫ দফা প্রস্তাবনা বাস্তবায়নের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের শান্তিপূর্ণ প্রত্যাবাসন সম্ভব : স্পিকার বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস আজ পুরান ঢাকার ভবন ভেঙে ফ্ল্যাট করে দেয়া হবে : গণপূর্তমন্ত্রী হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টের মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরুস্কার বিতরণ অগ্নিকান্ড রোধে প্রধানমন্ত্রীর ১৫টি নির্দেশনা মন্ত্রিসভায় গাজীপুর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইনের খসড়া অনুমোদন

মন্ত্রিসভায় গাজীপুর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইনের খসড়া অনুমোদন

দেশের খবর | ১৮ চৈত্র ১৪২৫ | Monday, April 1, 2019

ঢাকা, ১ এপ্রিল, ২০১৯ (বাসস) : মন্ত্রিসভা আজ গাজীপুর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইন-২০১৯ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন করেছে।
‘গাজীপুর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইন-২০১৯ এটা একেবারে হুবহু রাজশাহীর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইনের আদলে তৈরী করা। এখানে নতুনত্ব কিছু নাই। রাজশাহীর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইনটাকেই এখানে কপি করা হয়েছে, বৈঠকের পর সচিবালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম একথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘প্রস্তাবিত আইনে কতগুলো কর্মকান্ডকে অপরাধ বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। যেমন-ইমারত নির্মাণ, জলাধার খনন, উঁচু ভূমি সংক্রান্ত যে বিধি নিষেধ অন্য আইনে রয়েছে সেটা অমান্য করলে অপরাধ হবে। জলা ভূমি ভরাট ও জলাধার খননের বিধিবিধান লংঘন করলেও শাস্তির ব্যবস্থা আছে। খেলার মাঠ, উন্মুক্ত উদ্যান ও প্রাকৃতিক জলাধারের শ্রেণী পরিবর্তন করলেও শাস্তির ব্যবস্থা রয়েছে। অবৈধ নির্মাণ অপসারণ না করলেও শাস্তির বিধান রয়েছে। অনেকগুলো বিষয়ে দন্ড আরোপ করার বিধান রয়েছে। যেগুলো অন্য আইনেও রয়েছে।’
হবিগঞ্জ কৃষিবিদ্যালয় আইন-২০১৯ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা।
হবিগঞ্জ কৃষিবিদ্যালয় আইন-২০১৯ প্রসঙ্গে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বাংলাদেশে অন্যান্য কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার যে আইন রয়েছে এখানেও হুবহু একই রকম আইন করা হয়েছে। অন্যান্য জায়গায় যে বিষয়গুলো রয়েছে এখানেও সেই বিষয়গুলোই আছে।
তিনি বলেন, এর আচার্য বা চ্যান্সেলর থাকবেন রাষ্ট্রপতি এটি পরিচালনার জন্য উপাচার্য থেকে শুরু করে রেজিস্ট্রার পর্যন্ত বিভিন্ন পদের লোক থাকবেন। যেমন উপ-উপাচার্য, কোষাধ্যক্ষ, ফ্যাকাল্টির ডীন, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, সিন্ডিকেট থাকবে এবং কমপক্ষে ৩ মাস অন্তর সিন্ডিকেটের সভা হবে।
সচিব বলেন, একাডেমিক কাউন্সিল থাকবে, অনুষদ থাকবে, অনুষদ বাড়ানোর সুযোগ রাখা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে তিনটি অনুষদ হবে কৃষি অনুষদ, মৎস্য অনুষদ এবং পশু চিকিৎসা ও প্রাণি সম্পদ বিজ্ঞান অনুষদ এবং প্রয়োজনে এরসঙ্গে আরো অনুষদ বাড়ানো যেতে পারে।
তিনি বলেন, হবিগঞ্জের যেকোন সুবিধাজনক স্থানে এটি নির্মাণ করা হবে। যার স্থান এখনও নির্ধারিত হয়নি।
শফিউল আলম বলেন, বৈঠকের শুরুতেই একটি শোক প্রস্তাব গ্রহণ করে মন্ত্রিসভা। গত ২৮ মার্চ রাজধানীতে বনানীর এফআর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিদুর্ঘটনায় ২৬ জন নিহত এবং ১৩০ জন আহত হওয়ায় মন্ত্রিসভার বৈঠকে শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়।
এছাড়া ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রীর স্পেন সফর সম্পর্কে মন্ত্রিসভাকে অবহিতকরণ করা হয়।