ঢাকা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫, স্থানীয় সময়: ০৬:৫৫:৫৬

বিষ বিতর্ক ব্রিটিশ-মার্কিন গোয়েন্দাদের চাল : মস্কো

| ২৩ চৈত্র ১৪২৪ | Friday, April 6, 2018

বিষ বিতর্ক ব্রিটিশ-মার্কিন গোয়েন্দাদের চাল : মস্কোরাশিয়া অভিযোগ করেছে, ব্রিটিশ ও মার্কিন গোয়েন্দারা মিলেই পক্ষত্যাগী সাবেক রুশ গুপ্তচরের ওপর বিষ প্রয়োগের ঘটনা ঘটিয়েছে। বুধবার মস্কোতে দেওয়া এক বক্তব্যে এ অভিযোগ করেন রাশিয়ার গোয়েন্দা সংস্থা ‘ফরেন ইন্টেলিজেন্স সার্ভিসের’ প্রধান সের্গেই নেরিস্কিন। তিনি বলেন, এর মাধ্যমে পশ্চিমা বিশ্ব নতুন করে লৌহ পর্দা (স্নায়ুযুদ্ধকালীন সীমানা) টানতে চায়।

বুধবার মস্কোতে যখন রুশ গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান এ অভিযোগ করেন, তখন নেদারল্যান্ডসের হেগে ওই বিষ প্রয়োগ (নার্ভ এজেন্ট) বিতর্ক নিয়ে আন্তর্জাতিক রাসায়নিক অস্ত্র নিষিদ্ধকরণ সংস্থার (ওপিসিডাব্লিউ) বৈঠক চলছিল। রাশিয়ার অনুরোধে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে রাশিয়া এ ঘটনায় যৌথ তদন্তদল গঠনের প্রস্তাব দিলেও ভোটাভুটিতে রাশিয়া ৬-১৫ ভোটে হেরে যায়। ভোটদানে বিরত থাকে ১৭টি রাষ্ট্র, যারা জোটনিরপেক্ষ আন্দোলনের সদস্য। রাশিয়া এখন এ বিষয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক আহ্বান করেছে।

কূটনৈতিক সূত্র এএফপিকে নিশ্চিত করেছে ওপিসিডাব্লিউর বিশেষজ্ঞরা তদন্তের জন্য সলসবুরি থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছে। নমুনা ল্যাবে যাচাই করা হবে। আগামী সপ্তাহে এর ফল পাওয়া যেতে পারে।

মস্কোতে রাশিয়ার ফরেস ইন্টেলিজেন্স সার্ভিসের প্রধান সের্গেই নেরিস্কিন বলেন, নার্ভ এজেন্টের মাধ্যমে বিষ প্রয়োগের ঘটনাটি ছিল ‘উদ্ভট উসকানি’। ব্রিটিশ ও আমেরিকান নিরাপত্তা সংস্থাগুলো এতে স্থূলভাবে জড়িত ছিল। মস্কো ও পশ্চিমাদের অবশ্যই চলমান এই অচলাবস্থা এড়ানোর আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে স্নায়ুযুদ্ধ ফিরে এসেছে। তিনি বলেন, ‘পরিবর্তনের ভয়ে তাড়িত পশ্চিমারা এখন নিজেদের ঘিরে নতুন লৌহ পর্দা টানাতে প্রস্তুত হয়েছে।’

মার্কিন কূটনীতিকদের মস্কো ত্যাগ : রাশিয়া থেকে বহিষ্কৃত যুক্তরাষ্ট্রের ৬০ জন কূটনীতিক ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের প্রথম দলটি গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে মস্কোর ওয়াশিংটন দূতাবাস ছেড়ে যায়। এর আগে ব্রিটেনের প্রতি ‘সহর্মিতা’ দেখিয়ে ওয়াশিংটন ৬০ রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করেছিল।

অস্ত্র প্রতিযোগিতা চায় না ন্যাটো : বিষ প্রয়োগ বিতর্কের প্রেক্ষাপটে পশ্চিমাদের সামরিক জোট ন্যাটোর মহাসচিব জেন্স স্টলটেনবার্গ বলেছেন, রাশিয়ার সঙ্গে নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতা চায় না ন্যাটো। বুধবার অটোয়ায় কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর সঙ্গে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আমরা নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতা চাই না। আমরা মনোযোগ দেব শক্তিশালী পূর্বাভাস ও প্রতিরক্ষায় আমরা কিভাবে পরিস্থিতি মোকাবেলা করবো। আমরা নতুন স্নায়ুযুদ্ধ চাই না।’ সূত্র : এএফপি, এনডিটিভি।