ঢাকা, ফেব্রুয়ারী ১৭, ২০১৯, ৫ ফাল্গুন ১৪২৫, স্থানীয় সময়: ১০:১২:৪৮

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

না,গঞ্জের বন্দরে সরস্বতী প্রতীমা ভাংচুর:ঘটনাস্থল পরিদর্শনে বাংলাদেশ মাইনরিটি ওয়াচ ও হিন্দু হেরিটেজ ফাউন্ডেশন। সংরক্ষিত নারী আসনে ৪৯ জনের মনোনয়ন জমা স্কুল-কলেজের শিক্ষকরা না, কোচিং করাতে পারবেন ফ্রিল্যান্সাররা সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্য ও খাদ্য সহায়তা দেয়া বাংলাদেশের জন্য বিশাল চ্যালেঞ্জ : প্রমীলা প্যাটেন টানা তৃতীয়বার সংসদ উপনেতা হলেন সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি কর্ণফুলী ট্যানেলের খনন কাজের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী : সেতুমন্ত্রী বাংলাদেশ ও ভারতের বিমান বাহিনী প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় একযোগে কাজ করতে পারে : প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রিসভায় হজ নীতি ও হজ প্যাকেজ অনুমোদিত

বাংলাদেশের সামনে ২৫৬ রানের চ্যালেঞ্জ

দেশের খবর | ৫ আশ্বিন ১৪২৫ | Thursday, September 20, 2018

 

টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই দুই উইকেট হারিয়ে বসে আফগানিস্তান। সে ধারাবাহিকতায় দলীয় ১৬০ রানে সাত উইকেট হারিয়েছিল তারা। এই ইনিংসটা বেশিদূর নিয়ে যেতে পারবে না, এমনটা হয়তো অনেকেই ভেবেছিল। এশিয়া কাপ ক্রিকেটে সেই তারাই শেষ পর্যন্ত একটা বড় সংগ্রহই গড়েছে। নির্ধারিত ৫০ ওভারে তারা করে ২৫৫ রান।

আজ বৃহস্পতিবার আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে মূলত অষ্টম উইকেট দৃঢ়তায় এই চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ দাঁড় করায় আফগানিস্তান। গুলবদীন নাঈব ও মোহাম্মদ রশিদ দুজনে মিলে অসাধারণ একটি জুটি গড়েন, অষ্টম উইকেটে তাঁরা করেন ৯৫ রান।

নাঈব ৩৮ বলে  ৪২ এবং  রশিদ ৩২ বলে ৫৭ রানের দুটি ঝড়ো ইনিংস খেলেন। শেষ দিকে তাঁরা বাংলাদেশের বোলারদের ওপর একরকম চড়াও হয়ে খেলেন।

অবশ্য আফগানিস্তান দলীয় মাত্র ১০ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারিয়ে বসে। প্রথমে ইহসানউল্লাহ (৮) সাজঘরে ফিরেন। পরে রহমতও (১০) আউট হন। দুজনেই পেসার আবু হায়দার রনির শিকার হন।

এরপর আফগানিস্তান যখন ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছিল তখন বোলিংয়ে এসে সাফল্য পান সাকিব আল হাসান। মোহাম্মদ শেহজাদকে আউট করেন রনির ক্যাচ বানিয়ে। কিছুক্ষণ পর আফগানিস্তান অধিনায়ক আসগর আফগানকে (৮) সরাসরি বোল্ড করেন তিনি। বাঁহাতি অলরাউন্ডার ব্যক্তিগত তৃতীয় উইকেট তুলে নেন সামিউল্লাহ শেনওয়ারিকে ফিরিয়ে। তাঁর চতুর্থ শিকার মোহাম্মদ নবি।

সাকিব ও রনির পর পেসার রুবেল হোসেন আঘাত হেনেছেন আফগান ব্যাটিংয়ে। তিনি আফগানিস্তানের সবচেয়ে সফল ব্যাটসম্যান হাশমতুল্লাহ শহীদীর (৫৮) উইকেট তুলে নেন।

এরপর রশিদ ও নাঈব এসে যা করলেন তা বাংলাদেশের জন্য বড় চাপ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে শেষ ১০ ওভারে এক উইকেট হারিয়ে ৯৭ রান তুলেছে আফগানিস্তান।

সাকিব ৪২ রানে চারটি এবং রনি ৫০ রানে তিন উইকেট নেন। একটি উইকেট পান রুবেল।