ঢাকা, জুলাই ১৬, ২০১৮, ১ শ্রাবণ ১৪২৫, স্থানীয় সময়: ২৩:৪৭:৩৪

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে বিশ্বকাপ জিতলো ফ্রান্স মন্ত্রিসভায় মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক খসড়া আইন অনুমোদিত সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনে তার সংস্থা সবরকম সহায়তা করবে : আইওএম মহাপরিচালক ইস্কনের উদ্যোগে না’গঞ্জে বর্ণাঢ্য সাজে জগন্নাথ দেবের বিশাল রথযাত্রা,শোভাযাত্রাসহ সেচ্ছাসেবক হিসেবে হিন্দু হেরিটেজ ফাউন্ডেশনের সেববাদান । দেশে কোনও অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা নেই: সংসদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্যাম্পাসে গমনাগমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়নি : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ দারিদ্র্য দূরীকরণ ও নারীর ক্ষমতায়নে পরিবার পরিকল্পনা গুরুত্বপূর্ণ : স্পিকার ইসলামের শিক্ষাকে সমুন্নত রাখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণে বাংলাদেশের মহাকাশ জয় সম্ভব হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

নেপালের প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার ফোন

দেশের খবর | ২৮ ফাল্গুন ১৪২৪ | Monday, March 12, 2018

 

নেপালে বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী খাদগা প্রসাদ শর্মাকে ফোন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নেপালের প্রধানমন্ত্রী গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। শেখ হাসিনা বলেছেন, ত্রিভুবন বিমানবন্দর খোলার সঙ্গে সঙ্গে সাহায্যকারী দল পাঠাবে বাংলাদেশ।

আজ সোমবার বাংলাদেশ সময় দুপুর আড়াইটার দিকে কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হয় বেসরকারি এয়ারলাইনস ইউএস বাংলার একটি বিমান। ঢাকা থেকে রওনা দেওয়া বিমানটি ত্রিভুবন বিমানবন্দরে নামার সময় বিধ্বস্ত হয়। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত ৫০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

চারদিনের সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন সিঙ্গাপুরে আছেন। সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুংয়ের আমন্ত্রণে তিনি এ সফর করছেন। গতকাল রোববার প্রধানমন্ত্রী সিঙ্গাপুরে পৌঁছেন।

বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার খবর শুনে সিঙ্গাপুর থেকেই নেপালের প্রধানমন্ত্রীকে ফোন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে গণমাধ্যমকে জানানো হয়, সিঙ্গাপুর সময় সন্ধ্যা ৭টা ৫০ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেপালের প্রধানমন্ত্রী খাদগা প্রসাদ শর্মা অলির সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন। নেপালের প্রধানমন্ত্রী হতাহতের ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেন।

খাদগা প্রসাদ শর্মা অলি জানান, দুর্ঘটনা ঘটার পর তিনি ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘ত্রিভুবন বিমানবন্দর খোলার সঙ্গে সঙ্গে তিনি সাহায্যকারী দল নেপালে পাঠাবেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘প্রয়োজনীয় যত রকমের সাহায্য দরকার বাংলাদেশ তা করবে।’