ঢাকা, মে ২৭, ২০১৮, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, স্থানীয় সময়: ০৩:০৭:৫৬

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

পলাশবাড়ীর দুলাল ঠাকুরের বিরুদ্ধে দেব প্রতিমার প্রতি অসন্মানের অভিযোগ:বিচারের দাবীতে ফেইসবুকে তুলপার। শেখ হাসিনাকে সম্মানসূচক ডিলিট প্রদান মাদকের গডফাদাররা আ’লীগের লোক হওয়ায় অধরা : বিএনপি আজ সম্মানসূচক ডি.লিট পাচ্ছেন শেখ হাসিনা নজরুলের আদর্শে অসাম্প্রদায়িক সমাজ গঠনের আহ্বান রাষ্ট্রপতির ভারতীয় বিনিয়োগকে বাংলাদেশ স্বাগত জানায় : প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর রবীন্দ্রনাথের স্মৃতিবিজড়িত ঠাকুরবাড়ি পরিদর্শন বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক দৃঢ় ও অব্যাহত থাকবে : মমতা বাংলাদেশ ভবন উভয় দেশের সাংস্কৃতিক বিনিময়ের প্রতীক : মোদি জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মজয়ন্তী পালিত

নির্বাচনে খালেদা জিয়ার অংশগ্রহণ নির্ভর করবে আদালতের ওপর

দেশের খবর | ৩ ফাল্গুন ১৪২৪ | Thursday, February 15, 2018

 

ইইউ পার্লামেন্টের একটি প্রতিনিধিদল সিইসির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। ছবি : এনটিভি

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন কি না, তা আদালতের ওপরই নির্ভর করবে। এ ক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনের কিছু করণীয় নেই বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা।

আজ বুধবার নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) পার্লামেন্টের একটি সংসদীয় প্রতিনিধিদলের সাথে বৈঠকের পর নির্বাচন কমিশনের ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এসব কথা জানান।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হয় বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে আছেন খালেদা জিয়া।

সাংবাদিকরা আগামী নির্বাচনে বিএনপির প্রধান খালেদা জিয়ার অংশগ্রহণের ব্যাপারে জানতে চাইলে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘মাননীয় প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছেন, তা হচ্ছে আদালতের বিষয়। আদালত যদি অনুমতি দেয় তাহলে এ ব্যাপারে তো নির্বাচন কমিশনারের কিছু করার থাকে না। আদালত অনুমতি না দিলে সেখানেও নির্বাচন কমিশনের কোনো ভূমিকা নেই।’

হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘আইন ও সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন আগামী সংসদ নির্বাচন পরিচালনা করবে।’

হেলালুদ্দীন আহমদ জানান, সিইসির সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে ইইউ প্রতিনিধি দল বাংলাদেশের নির্বাচনী ব্যবস্থা, প্রবাসীদের ভোটার করা ও প্রার্থীদের নির্বাচনী ব্যয়ের বিষয়ে জানতে চেয়েছে।

ইইউ পার্লামেন্টের দক্ষিণ এশীয় প্রতিনিধি জেন ল্যামবার্ট, ‘একটি স্বাধীন ও সবার কাছে আস্থার নির্বাচন কমিশন প্রয়োজন। যা আগামী জাতীয় নির্বাচনের জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। যাতে এই নির্বাচনে বাংলাদেশের অধিকাংশ ভোটারদের মতামতের প্রতিফলন পাওয়া যায়। এ ক্ষেত্রে দলগুলোও যাতে পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নিতে পারে সে বিষয়গুলো নিয়েই আমরা কথা বলেছি।