ঢাকা, ফেব্রুয়ারী ১৭, ২০১৯, ৫ ফাল্গুন ১৪২৫, স্থানীয় সময়: ০৯:৫৬:৩২

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

না,গঞ্জের বন্দরে সরস্বতী প্রতীমা ভাংচুর:ঘটনাস্থল পরিদর্শনে বাংলাদেশ মাইনরিটি ওয়াচ ও হিন্দু হেরিটেজ ফাউন্ডেশন। সংরক্ষিত নারী আসনে ৪৯ জনের মনোনয়ন জমা স্কুল-কলেজের শিক্ষকরা না, কোচিং করাতে পারবেন ফ্রিল্যান্সাররা সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্য ও খাদ্য সহায়তা দেয়া বাংলাদেশের জন্য বিশাল চ্যালেঞ্জ : প্রমীলা প্যাটেন টানা তৃতীয়বার সংসদ উপনেতা হলেন সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি কর্ণফুলী ট্যানেলের খনন কাজের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী : সেতুমন্ত্রী বাংলাদেশ ও ভারতের বিমান বাহিনী প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় একযোগে কাজ করতে পারে : প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রিসভায় হজ নীতি ও হজ প্যাকেজ অনুমোদিত

দেশ-বিদেশের কোটা সংক্রান্ত তথ্য ও প্রতিবেদন সংগ্রহ করবে কমিটি

দেশের খবর, প্রধান সংবাদ | ২৪ আষাঢ় ১৪২৫ | Sunday, July 8, 2018

image_printPrint

ঢাকা, ৮ জুলাই, ২০১৮ (বাসস) : দেশ-বিদেশের কোটা সংক্রান্ত তথ্য ও প্রতিবেদন সংগ্রহ করবে কোটা সংস্কার কমিটি।
আজ রোববার সচিবালয়ে কমিটির প্রথম বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিবের দফতরে সকাল ১১টার দিকে এ বৈঠক শুরু হয়।
মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব এবং কোটা সংস্কার কমিটির আহ্বায়ক মোহাম্মদ শফিউল আলম বৈঠকে সভাপতিত্ব করবেন।
বৈঠক শেষে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব (বিধি) আবুল কাশেম মোহাম্মদ মহিউদ্দিন সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। আবুল কাশেম কমিটিতে সাচিবিক দায়িত্ব পালন করছেন।
যুগ্ম-সচিব বলেন, এটি কমিটির প্রথম মিটিং ছিল। মিটিংয়ে মূলত কমিটির কর্মপন্থা নির্ধারণ করা হয়েছে। সেই কর্মপন্থার প্রথম যে স্টেপ সেটি হচ্ছে, কোটা সংক্রান্ত দেশে-বিদেশে যে তথ্য রয়েছে বা আমাদের বিভিন্ন সময়ে গঠিত কমিশন বা কমিটির যে রিপোর্ট রয়েছে তা যতদ্রুত সম্ভব সংগ্রহ করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।
তিনি বলেন, এই রিপোর্ট, প্রতিবেদন বা তথ্য যেটাই বলেন, সেগুলো প্রাপ্তির পর মূলত আমরা দ্বিতীয় মিটিংয়ে বসব।’
আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে কোটা সংস্কার সম্পর্কিত কমিটি সুপারিশ পেশ করার চেষ্টা করা হবে জানিয়ে আবুল কাশেম বলেন, কমিটিকে যেহেতু ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে, সেকারণে আমরা আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই সুপারিশ পেশ করার চেষ্টা করবো। একান্তই যদি আমরা ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে সেটি করতে না পারি তাহলে পরবর্তীতেই পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।
‘কমিটিতে আরও কাউকে যুক্ত করা হবে কিনা’- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এখনও এ ব্যাপারে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তবে তথ্য-উপাত্ত ও এর আগে বিভিন্ন সময়ের প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
এর আগে গত ২ জুলাই প্রজাতন্ত্রের চাকরিতে বিদ্যমান কোটা পদ্ধতি পর্যালোচনা বা বাতিল অথবা সংস্কারের লক্ষ্যে সাত সদস্য বিশিষ্ট উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠন করে সরকার। ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে সরকারের কাছে সুপারিশসহ প্রতিবেদন জমা দেবে এ কমিটি।