ঢাকা, এপ্রিল ১৯, ২০১৯, ৫ বৈশাখ ১৪২৬, স্থানীয় সময়: ০৩:০৮:১৯

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

দক্ষ জনবল নেই, ৪২ হাজার ট্যাব কিনল ইসি! মেট্রোরেলের দেয়ালে বাসের ধাক্কা, বৃদ্ধা নিহত বঙ্গবন্ধুর ওপর নির্মিত নাটক, প্রতিযোগিতার জন্য ট্রাস্টের অনুমতির প্রয়োজন নেই ২১ এপ্রিল দিবাগত রাতে সারাদেশে পবিত্র লাইলাতুল বরাত প্রধানমন্ত্রীর ৫ দফা প্রস্তাবনা বাস্তবায়নের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের শান্তিপূর্ণ প্রত্যাবাসন সম্ভব : স্পিকার বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস আজ পুরান ঢাকার ভবন ভেঙে ফ্ল্যাট করে দেয়া হবে : গণপূর্তমন্ত্রী হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টের মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরুস্কার বিতরণ অগ্নিকান্ড রোধে প্রধানমন্ত্রীর ১৫টি নির্দেশনা মন্ত্রিসভায় গাজীপুর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইনের খসড়া অনুমোদন

তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত পরীক্ষা বাতিল চলতি বছরেই : সচিব

দেশের খবর | ১০ চৈত্র ১৪২৫ | Sunday, March 24, 2019

 

এ বছর থেকেই তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা দিতে হবে না বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম-আল-হোসেন।

আজ রোববার সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভা কক্ষে প্রাথমিকের বৃত্তির ফল প্রকাশ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন আকরাম-আল-হোসেন।

আকরাম-আল-হোসেন বলেন, ‘তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত পরীক্ষা তুলে দেওয়া হলেও মূল্যায়ন প্রক্রিয়া থাকবে। নিচের ক্লাস থেকে উপরের ক্লাসে উত্তীর্ণ করতে এ প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে। আর চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণিতে পরীক্ষা নেওয়া হবে।’

সচিব বলেন, ‘সারাদেশে কোচিংগুলোর বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।’

এর আগে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা-২০১৮ এর বৃত্তির ফল প্রকাশ উপলক্ষে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মো. জাকির হোসেন সংবাদ সম্মেলনে বৃত্তিপ্রপ্ত শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রকাশ করেন।

সচিব বলেন, ‘প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় ফলাফলের ভিত্তিতে এ বছর ৩৩ হাজার শিক্ষার্থী ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পেয়েছে। আর সাধারণ কোটায় বৃত্তি পেয়েছে ৪৯ হাজার ৫০০ জন। সব মিলে এবার প্রাথমিকে বৃত্তি পেয়েছে ৮২ হাজার ৫০০ জন।’

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, উপজেলা/থানার প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ছাত্র-ছাত্রীদেও সংখ্যার অনুপাতে উপজেলা/থানা কোটা নির্ধারণ করে ট্যালেন্টপুল বৃত্তি বণ্টন করা হয়। এবার মোট সাত হাজার ৯৮৮ টি ইউনিয়ন/পৌরসভার ওয়ার্ডে প্রতিটিতে ছয়টি (তিনজন ছাত্র ও তিনজন ছাত্রী) হিসাবে ৪৭ হাজার ৯২৮টি এবং অবশিষ্ট ১৫৭২টি বৃত্তি হতে প্রতিটি উপজেলা/থানা হতে আরো তিনটি (একজন ছাত্র, একজন ছাত্রী ও একজন উপজেলা মেধা ভিত্তিতে) করে ৫১০টি উপজেলা/থানায় এক হাজার ৫৩০টি সাধারণ বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে।