ঢাকা, ফেব্রুয়ারী ২৪, ২০১৮, ১১ ফাল্গুন ১৪২৪, স্থানীয় সময়: ০০:৩৬:০৮

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে ৮ হাজার ৩২ জন রোহিঙ্গা নাগরিককে ফিরিয়ে নেয়ার তালিকা হস্তান্তর বাংলা ভাষা সেমিনারে হাসানুল হক ইনু : শুদ্ধ উচ্চারণ ও বানানে সকল দপ্তরে বাংলা তরুণ প্রজন্মই জাতির ভবিষ্যৎ : স্পিকার রোহিঙ্গাদের তিন পর্যায়ে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ার কথা জানিয়েছে মিয়ানমার যশোরে বাংলাদশ জাতীয় হিন্দু যুব মহাজোটের জেলা কমিটি গঠন:প্রধান অতিথী মানিক চন্দ্র সরকার। নরসিংদিতে জাতীয় হিন্দু মহাজোটের উদ্যোগে ধর্মসভা :আন্তর্জাতিক নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহন সেনবাগে মন্দিরে হামলা, অগ্নিসংযোগ সুবিধাবঞ্চিতদের গোলাপ খাবার দিয়ে ভালোবাসা দিবস পালন নির্বাচনে খালেদা জিয়ার অংশগ্রহণ নির্ভর করবে আদালতের ওপর ইইউর সঙ্গে বিএনপির বৈঠক আমরা আমাদের অবস্থান জানিয়েছি: ফখরুল

তথ্য প্রযুক্তি শিক্ষার ওপর জোর দিতে শিক্ষার্থীদের প্রতি নৌপরিবহন মন্ত্রীর আহবান

দেশের খবর | ৩০ মাঘ ১৪২৪ | Monday, February 12, 2018

ঢাকা : নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, সুশিক্ষিত নাগরিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে হলে শিক্ষাকে একটি শক্ত ভিতের ওপর দাঁড় করাতে হবে। তথ্য প্রযুক্তি শিক্ষার ওপর জোর দিতে এবং মাদক, জুয়া, জঙ্গি ও বাল্যবিবাহ থেকে নিজেদেরকে দূরে রাখতে শিক্ষার্থীদের প্রতি তিনি আহবান জানান।
আজ ঢাকায় বিআইডব্লিউটিসি কার্যালয়ে বিআইডব্লিউটিসি’র কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের কৃতি সন্তানদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ আহবান জানান।
বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্পোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মফিজুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যন্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মোঃ আবদুস সামাদ, বিআইডব্লিউটিসির পরিচালক (প্রশাসন) প্রণয় কান্তি বিশ্বাস, বিআইডব্লিউটিসি অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি আশিকুর রহমান এবং কর্মচাররি ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ মহসিন ভূইয়া।
শাজাহান খান বলেন, যুগোপযোগী শিক্ষার প্রসারে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলতে তথ্য প্রযুক্তি শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। ২০২১ সাল নাগাদ মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সাল নাগাদ উন্নত বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হলে নতুন প্রজন্মকে তথ্য প্রযুক্তির জ্ঞানে সমৃদ্ধ হতে হবে।
আজ ২০১৬ অনুষ্ঠিত এস এস সি, এইচ এস সি ও সমমানের পরীক্ষায় জিপিএ-৫ এবং ৪(এ) গ্রেড প্রাপ্ত ৮৭ জন সন্তানের মাঝে ৩ লাখ ২০ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়।
বিআইডব্লিউটিসি ২০০৯ সাল থেকে সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারিদের কৃতি সন্তানদের বৃত্তি প্রদান করে আসছে। এ পর্যন্ত ৬৪৮ জন সন্তানদের মাঝে ২৫ লাখ টাকা বিতরণ করা হয়েছে।