ঢাকা, অক্টোবর ২০, ২০১৮, ৫ কার্তিক ১৪২৫, স্থানীয় সময়: ১৩:২২:১১

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

জমে উঠেছে শারদীয় দুর্গোৎসব, কাল বিসর্জন কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শেষ শ্রদ্ধা, জাতীয় ঈদগাহে প্রথম জানাজা বানৌজা শেখ মুজিব-এ ভর্তি কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে না আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি হওয়ার সম্ভাবনা নেই: আমু নারী সাংবাদিক বলেই কি অবলীলায় চরিত্রহীন বলে দেয়া? সংগীত শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু আর নেই মসজিদে আল-নববীতে মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর রওজা জিয়ারত প্রধানমন্ত্রীর দুর্গোৎসব উপলক্ষ্যে দক্ষিণ চট্টগ্রামে বিনা ভাড়ায় বাস সার্ভিস অপরাধীদের সাথে নিয়ে ঐক্যফ্রন্টের ঘোষণা জাতির সঙ্গে ঠাট্টা-মশকরা : তথ্যমন্ত্রী

তথ্য প্রযুক্তি শিক্ষার ওপর জোর দিতে শিক্ষার্থীদের প্রতি নৌপরিবহন মন্ত্রীর আহবান

দেশের খবর | ৩০ মাঘ ১৪২৪ | Monday, February 12, 2018

ঢাকা : নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, সুশিক্ষিত নাগরিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে হলে শিক্ষাকে একটি শক্ত ভিতের ওপর দাঁড় করাতে হবে। তথ্য প্রযুক্তি শিক্ষার ওপর জোর দিতে এবং মাদক, জুয়া, জঙ্গি ও বাল্যবিবাহ থেকে নিজেদেরকে দূরে রাখতে শিক্ষার্থীদের প্রতি তিনি আহবান জানান।
আজ ঢাকায় বিআইডব্লিউটিসি কার্যালয়ে বিআইডব্লিউটিসি’র কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের কৃতি সন্তানদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ আহবান জানান।
বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্পোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মফিজুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যন্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মোঃ আবদুস সামাদ, বিআইডব্লিউটিসির পরিচালক (প্রশাসন) প্রণয় কান্তি বিশ্বাস, বিআইডব্লিউটিসি অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি আশিকুর রহমান এবং কর্মচাররি ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ মহসিন ভূইয়া।
শাজাহান খান বলেন, যুগোপযোগী শিক্ষার প্রসারে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলতে তথ্য প্রযুক্তি শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। ২০২১ সাল নাগাদ মধ্যম আয়ের এবং ২০৪১ সাল নাগাদ উন্নত বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হলে নতুন প্রজন্মকে তথ্য প্রযুক্তির জ্ঞানে সমৃদ্ধ হতে হবে।
আজ ২০১৬ অনুষ্ঠিত এস এস সি, এইচ এস সি ও সমমানের পরীক্ষায় জিপিএ-৫ এবং ৪(এ) গ্রেড প্রাপ্ত ৮৭ জন সন্তানের মাঝে ৩ লাখ ২০ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়।
বিআইডব্লিউটিসি ২০০৯ সাল থেকে সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারিদের কৃতি সন্তানদের বৃত্তি প্রদান করে আসছে। এ পর্যন্ত ৬৪৮ জন সন্তানদের মাঝে ২৫ লাখ টাকা বিতরণ করা হয়েছে।