ঢাকা, মে ২৪, ২০১৮, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, স্থানীয় সময়: ০২:৪৭:০৭

চট্টগ্রাম, রাঙামাটিসহ ১৩ জেলায় ম্যালেরিয়া আছে

স্বাস্থ্য ও বিনোদন | ১১ বৈশাখ ১৪২৫ | Tuesday, April 24, 2018

এএফপি ফাইল ছবিএএফপি ফাইল ছবিবাংলাদেশে ম্যালেরিয়া নির্মূলে সাফল্য এখন আশাব্যঞ্জক। তবে দেশের ১৩টি জেলায় এখনো ম্যালেরিয়ার প্রাদুর্ভাব আছে। ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে ম্যালেরিয়া মুক্ত ঘোষণা করা হবে। সে লক্ষ্যেই স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কাজ করছে।

আজ মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে এক সংবাদ সম্মেলনে এই ভিশনের কথা জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ। ২৫ এপ্রিল বিশ্ব ম্যালেরিয়া দিবস উপলক্ষে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘গত কয়েক বছরে দেশের ৫১টি জেলায় ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার খবর আমাদের কাছে আসেনি।’ তিনি আরও বলেন, অনেকে পার্বত্য জেলাগুলোতে ঘুরতে গেলে মশার কামড় খায়। কিন্তু ঢাকায় ফেরার পর তা ধরা পড়ে। তখন চিকিৎসকেরা অনেক সময় বুঝতে পারেন না। কারণ, ঢাকায় তো ম্যালেরিয়া নেই। তিনি চিকিৎসকদের এটা নিয়ে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ বিভাগের পরিচালক ও কমিউনিকেবল ডিজিজ লাইন ডিরেক্টর সানিয়া তহমিনা বলেন, যাঁরা পার্বত্য জেলাগুলোতে বেড়াতে যান, তাঁদের সচেতন করতে একটি গাইডলাইন করা হয়েছে। এই গাইডলাইনটি বিভিন্ন হোটেলে যেখানে দর্শনার্থীরা থাকেন, সেখানে বিলি করা হবে।

জাতীয় ম্যালেরিয়া ও এডিসবাহিত রোগ নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার এম এম আক্তারুজ্জামান বলেন, ২০১৪ সালে ম্যালেরিয়ায় মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ৪৫ জন। ২০১৫ সালে তা অনেকটাই কমে যায়। এ সংখ্যা দাঁড়ায় নয়জনে। আর ২০১৭ সালে ম্যালেরিয়ার কারণে মৃত্যু হয় ১৩ জনের। তিনি বলেন, ‘ম্যালেরিয়া নির্মূলে প্রস্তুত আমরা। কারণ, টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রায় আমরা এটিকে নির্মূল করতে নির্ধারণ করেছি।’

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে, ২০০৭ সালে ৫৯ হাজার ৮৫৭ জন ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হয়। সেবার এই রোগে মারা যায় ২২৮ জন। আর ২০১৭ সালে ২৯ হাজার ২৪৭ জন ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হয় এবং মারা যায় ১৩ জন। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, দেশে ম্যালেরিয়া নির্মূলে সাফল্য আশাব্যঞ্জক। তবে দেশের ১৩টি জেলার ৭১টি উপজেলায় এখনো ম্যালেরিয়ার প্রাদুর্ভাব রয়েছে। জেলাগুলো হলো রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দরবান, কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার, সিলেট, হবিগঞ্জ, নেত্রকোনা, ময়মনসিংহ, শেরপুর ও কুড়িগ্রাম। তবে এর মধ্যে পার্বত্য জেলাগুলোতে ঝুঁকি বেশি।

সংবাদ সম্মেলনে মূল প্রবন্ধে ম্যালেরিয়া নির্মূলে চ্যালেঞ্জগুলো তুলে ধরা হয়। এগুলো হলো দুর্গম এলাকায় চিকিৎসকের স্বল্পতা ও চিকিৎসার অপর্যাপ্ত সুযোগ, সীমান্তবর্তী এলাকায় মানুষের দ্রুত অবস্থান পরিবর্তন, জলবায়ুগত পরিবর্তন।

জাতীয় ম্যালেরিয়া কর্মসূচি তার কর্মপরিকল্পনা (২০১৭-২০২১) হালনাগাদ করেছে। এই কর্মসূচি বাংলাদেশ থেকে ম্যালেরিয়া নির্মূলের লক্ষ্যে ধাপে ধাপে কাজ করবে। ২০২১ সালের মধ্যে ১৩টি ম্যালেরিয়াপ্রবণ জেলার মধ্যে আটি জেলায় সংক্রমণ রোধ করার ভিশন নেওয়া হয়েছে।
এ কর্মসূচির আওতায় একটি ম্যালেরিয়া হটলাইন (০১৭৮৭৬৯১৩৭০) চালু করা হয়েছে। ম্যালেরিয়াপ্রবণ এলাকা ভ্রমণ শেষে কারও ম্যালেরিয়া দেখা দিলে এই নম্বরে যোগাযোগ করার অনুরোধ করা হয়েছে।